প্রযুক্তি দিয়েই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা হবে: জব্বার

img

বিজটেক২৪ ডটকম: ডাক ও টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপনের সোনার বাংলা তৈরি হবে আমাদের এই তথ্য প্রযুক্তি দিয়েই। যে সোনার বাংলার স্বপ্ন তিনি দেখেছেন তা বাস্তবায়িত হবে প্রযুক্তির মাধ্যমে।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপো-২০১৮’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিশ্বের যে কোন দেশ থেকে বাংলাদেশ পিছিয়ে নেই উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এই খাতে বিনিয়োগে অনেক দেশ থেকে এগিয়ে আছি আমরা। সঠিক পথে এ খাতটিকে রাখতে পারলে এর আরো উন্নতি সম্ভব। প্রযুক্তি খাতে যারা বিনিয়োগ করবেন সরকার তাদের ২০২৪ সাল পর্যন্ত ট্যাক্স মওকুফের চিন্তাভাবনা করছে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা আমদানিকারক নই, আমরা রপ্তানিকারক দেশ হতে চাই। দেশে বর্তমানে ওয়ালটন কারখানা স্থাপন করেছে। এছাড়া সিম্ফনি, উইসহ বেশ কয়েকটি দেশী ব্র্যান্ডের কারখানা স্থাপন প্রক্রিয়াধীন। আশা করছি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ডও দেশে মোবাইল তৈরিতে আগ্রহী হবে। মন্ত্রী বলেন, আমরা ৬০০ টাকায় নয়, ভ্যাট ছাড়া সাবমেরিন কেবল কোম্পানি ২০৪ টাকায় প্রতি এমপিবিএস ব্যন্ডউইডথ দিয়ে থাকে। যারা ফ্রি ওয়াইফাই দেবেন তাদের প্রচলিত মূল্যের চেয়ে যাতে কম দামে ব্যান্ডউইডথ দেয়া যায় সে ব্যবস্থা করা হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, আমাদের দেশ থেকে এখন সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার সেবা বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে। আর এগুলো রপ্তানিতে সরকার সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ রপ্তানি সহায়তা দিচ্ছে। আমাদের উপদেষ্টা সজিব আহমেদ জয় এর নির্দেশে একজন নাগরিক তার মুঠোফোনেই যেন সকল সরকারি সেবা পায় আমরা সে লক্ষ্যেই কাজ করছি।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার স্যাংওয়ান ইউন, ট্রানশান বাংলাদেশ লিমিটেডের সিইও রেজওয়ানুল হক, শাওমি বাংলাদেশের সিইও দেওয়ান কানন, আমরা কোম্পানিজের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ ফারহাদ আহমেদ, হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের ডেপুটি ডিরেক্টর (হুয়াওয়ে ডিভাইস বিজনেস ডিপার্টমেন্ট) জিয়া উদ্দীন, এলজি মোবাইল বাংলাদেশ এর পরিবেশক প্রতিষ্ঠান মেট্রোসেম টেকনোলজিস লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শাহিদুল্লাহ, অপ্পো বাংলাদেশের মার্কেটিং ডিরেক্টর ব্রুস লি, এডিসন গ্রুপের ডিজিএম মার্কেটিং মো. আসাদুজ্জামান। অুনষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এক্সপো মেকারের কৌশলগত পরিকল্পনাকারী মুহম্মদ খান।
মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিটি ব্র্যান্ড মূল্যছাড় ও বিভিন্ন উপহার অফার দিচ্ছে। এমনকি একটি কিনলে একটি ফ্রি অফারও দিচ্ছে কিছু ব্র্যান্ড। মেলা চলবে শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত মেলা দর্শনার্থীদের জন্য উম্মুক্ত থাকবে।



-->

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

জব