আওয়াজ দিয়েও আসতে পারছে না সিটিসেল

img

বিজটেক২৪ ডটকম: নতুন করে ফিরে আসার আওয়াজ দিয়েও অর্থ সংকটের কারণে শেষ পর্যন্ত আসতে পারছে না দেশের সবচেয়ে পুরনো মোবাইল ফোন অপারেটর সিটিসেল। থ্রিজির মতো ফোরজিতেও অংশ নিতে পারছে না প্রতিষ্ঠানটি। এদিকে পর্যাপ্ত পরিমাণ স্পেকট্রাম থাকার কারণে নিলাম প্রক্রিয়ায় অংশ নিচ্ছে না রবি আজিয়াটা লিমিটেড।
বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) শীর্ষ এক কর্মকর্তা জানান, থ্রিজি গাইডলাইন অনুযায়ী যেসব অপারেটর থ্রিজির লাইসেন্স পেয়েছে তারা ফোরজির লাইসেন্স পাওয়ার যোগ্য হবে। কিন্তু সিটিসেলের থ্রিজি লাইসেন্স না থাকায় তাদের শুধু ফোরজির লাইসেন্স ফি’র সাড়ে ১১ কোটি টাকা দিলেই লাইসেন্স পেয়ে যাবে। অন্যান্য অপারেটরগুলো বর্তমানে থ্রিজি সেবা দেয়ায় তারা সরাসরি লাইসেন্স পাওয়ার যোগ্য বিবেচিত হবে।
এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি লাইসেন্সের জন্য আবেদন করা সিটিসেল যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়ায় টিকে যাওয়ায় এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকা অপারেটরটি আবার সচল হওয়ার একটি সুযোগ তৈরি হয়।
এদিকে সরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক নতুন করে কোনো স্পেকট্রাম কিনবে না বলে আগেই জানিয়ে দিয়েছিল। আর গ্রামীণফোন একটি ব্যান্ড এবং বাংলালিংক দুটি ব্যান্ডের জন্য নিলামে অংশ নেবে। সোমবার গ্রামীণফোন জামানত হিসেবে দেড়শ কোটি টাকা এবং বাংলালিংক তিনশ' কোটি টাকা জমা দিয়েছে। এছাড়া রবি ও এয়ারটেল একীভূত হওয়ার কারণে মূল অপারেটর রবির নতুন করে কোনো স্পেকট্রাম দরকার নেই। তবে তরঙ্গ প্রযুক্তিগত নিরপেক্ষতার জন্য এই অপারেটর টাকা জমা দিয়েছে। নিলাম প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর অপারেটরটি বিদ্যমান স্পেকট্রাম দিয়েই ফোরজি সেবা দিতে পারবে।
আগামি ১৩ ফেব্রুয়ারি স্পেকট্রাম নিলামের সময় নির্ধারণ করেছে বিটিআরসি। পর দিনই লাইসেন্স ও স্পেকট্রামের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করবে বিটিআরসি।



-->

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

জব