শাওমি রেডমি৩ : কম দামে অনেক কিছু

img

বিজটেক২৪ ডটকম
আইটি ডেস্ক: চীনা অ্যাপল খ্যাত শাওমি দামে অধিক ফিচারের স্মার্টফোন বাজারজাত করে বেশ শক্ত অবস্থান গড়ে নিয়েছে। কোম্পানিটি এবার রেডমি সিরিজের তৃতীয় ফোন রেডমি ৩ বাজারে এনে বেশ সাড়াও ফেলেছে।

ডিজাইন: রেডমি ৩ ফোনটি একই সিরিজের আগের দুটির চেয়ে আলাদা। রেডমি সিরিজে এই প্রথম গ্লোসি প্লাস্টিকের পরিবর্তে অ্যালুমিনিয়াম মেটাল বডি ব্যবহার করা হয়েছে। এ কারণে ফোনটি পেয়েছে প্রিমিয়াম লুক। তবে মেটালিক এ ডিজাইনের কারণে দীর্ঘক্ষণ ব্যবহারে এটি কিছুটা গরম হয়ে যায়। মেটালিক বডির কারণে কিছুটা অস্বস্তিও হতে পারে। এছাড়া ৫ ইঞ্চির এ ডিভাইস অনেকটা হালকা গড়নের ও এক হাতে ধরে ব্যবহার করা যায়। এটির ফ্রন্ট প্যানেলের উপরের দিকে রয়েছে স্পিকার, ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা ও প্রক্সিমিটি সেন্সর। ডিসপ্লের একেবারে নিচে রয়েছে তিনটি টাচ ক্যাপাসিটিভ বাটন। এতে কোনো হার্ডওয়্যার বাটন ব্যবহার করা হয়নি। ফোনের ডান পাশে রিমুভএবল সিম ট্রেতে একই সঙ্গে মাইক্রো সিম ও ন্যানো সিম অথবা মাইক্রো সিম ও এসডি কার্ড ব্যবহার করা যাবে। অর্থাৎ এতে একই সাথে ডুয়াল সিম ও এক্সটার্নাল মেমরি কার্ড সুবিধা উপভোগ করা যাবে না ।

ডিসপ্লে: ফোনটিতে ৫ ইঞ্চির ৭২০ পিক্সেল আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। পিপিআই মাত্র ২৯৪। দামের বিবেচনায় ডিসপ্লে কোয়ালিটি মোটামুটি মানের।

কানেক্টিভিটি: ফোনটি সেভেন ব্যান্ডের ফোরজি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে। তবে সুবিধাটি দুটি সিমের যে কোনো একটিতে ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া ওয়াই-ফাই,ওয়াই-ফাই ডিরেক্ট, জিপিএস, এফএম রেডিও, ইউএসবি ২.০ কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে।

পারফরমেন্স: এটিতে চিপসেট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকমের স্নাপড্রাগন ৬১৬ চিপসেট, যা স্নাপড্রাগন ৬১৫-এর উন্নত ভার্সন। অক্টাকোর প্রসেসরের এ ডিভাইসে কর্টেক্স এ৫৩ আর্কিটেক্সারের ১.৫ গিগারহার্জের চারটি ও ১.২ গিগাহার্জের চারটি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। গ্রাফিক্স প্রসেসিংয়ের জন্য রয়েছে অ্যান্ড্রিনো ৪০৫ জিপিউ। পাশাপাশি ২ গিগাবাইট র‍্যামের কারণে ডিভাইসটির পারফরমেন্স বেশ ভালো। কোনো রকম ল্যাগ ছাড়া অনায়েসেই সব হাই-ডিফিনেশন গেম খেলা যাবে।

ইউজার ইন্টারফেস: শাওমির নিজস্ব কাস্টমাইজড অপারেটিং সিস্টেম মিইউআই সেভেনে চলবে এ ফোন। এটি মূলত অ্যান্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপের একটি কাস্টমাইজড ভার্সন। এ কারণে ব্যবহারকারী ললিপপের পাশাপাশি নতুন ফিচারের সুবিধা পাবেন। তবে অসুবিধা একটাই- অন্যান্য চাইনিজ ডিভাইসের মতো এটিতেও থাকছে না বিল্ট-ইন গুগুল সার্ভিসেস (গুগল প্লে, জিমেইল প্রভৃতি)। চাইলে অবশ্য এগুলো ইন্সটল করা যাবে।

মাল্টিমিডিয়া: মিউজিক লাভারদের কাছে শাওমি অনেক আগে থেকেই এক আস্থার ব্র্যান্ড। এটিতেও সে ধারাবাহিকতা বজায় আছে। অডিও আউটপুট কোয়ালিটি বেশ ভালো। কোনো ধরনের ল্যাগ ছাড়াই ফুল এইচডি ভিডিও প্লেব্যাক হয়।

ক্যামেরা: ১৩ মেগাপিক্সেলের সামনের ও ৫ মেগাপিক্সেলের সামনের ক্যামেরা দিয়ে বেশ ভালো ছবি তোলা যাবে।
এ ক্যামেরা দিয়ে ৩০ ফ্রেম পার সেকেন্ডে ১০৮০ পিক্সেল রেজুলেশনের ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। ভিডিও কোয়ালিটিও ভাল।

ব্যাটারি: ৪,১০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের নন-রিমুভএবল লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির কারণে ব্যাক-আপ অসাধারণ বলতেই হবে। একবার ফুল চার্জে টানা দুই-তিন দিন চলবে। ফার্স্ট চার্জিং সুবিধা থাকায় অল্প সময়েই ফুল চার্জ হয়।

দাম: দেশের বাজারে ২ গিগাবাইট র‍্যামের স্মাটফোনটি পাওয়া যাবে ১২,০০০-১২,৫০০ টাকায় আর ৩ গিগাবাইট র‍্যামের ১৮,০০০-১৯,৫০০ টাকায় ।

এক নজরে ভালো-
# অসাধারন বিল্ড কোয়ালিটি
# ভালো মানের ব্যাটারি লাইফ
# স্মুথ ইউজার ইন্টারফেস
# উন্নতমানের ক্যামেরা

এক নজরে খারাপ-
# অপেক্ষাকৃত খারাপ ডিসপ্লে
# একই সঙ্গে ডুয়াল সিম ও মেমরি কার্ড ব্যবহার করা যায় না
# অল্পতেই গরম হয়
# নন-রিমুভএবল ব্যাটারি



-->

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

জব